রিং আইডি দিয়ে ইনকাম ২০২১ সালে অনলাইনে আয় করুন

রিং আইডি দিয়ে ইনকাম

রিং আইডি দিয়ে ইনকাম ২০২১

আপনি কি অনলাইনে ইনকাম করতে আগ্রহি? তাহলে আপনি খুব সহজেই রিং আইডি দিয়ে ইনকাম করতে পারবেন। কেননা রিং আইডি দিয়ে ইনকাম ২০২১ করা অনেক সহজ।

আজকে আমি আপনাদের (Ring ID)  রিং আইডি দিয়ে ইনকাম করার বেশ কিছু পদ্ধতি আপনাদের মাঝে শেয়ার করতে চলেছি। আপনারা দেখতেছেন Nour 360. চলুন শুরু করি আজকের এক পোস্টটি।

রিং আইডি কি? What is Ring ID in bangla?

রিং আইডি হলো ফেসবুক, ইনস্টাগ্রাম ও টুইটাররের মতো এক বিশাল তথ্য ও যোগাযোগ কিংবা সামাজিক মাধ্যম। ২০১৪ সালের নভেম্বর মাসে রিং আইডি (Ring ID) নমক একটি সোস্যাল মিডিয়া অ্যাপস গুগল প্লেস্টোরে লঞ্চ করে।

এবং লঞ্চ হওয়ার কিছুদিনের মধ্যেই অ্যাপটি বেশ জনপ্রিয় হয়ে উঠে। কেননা ওই সময় রিং আইডি দিয়ে ইনকাম/আয় করার সুযোগ ছিল।

যদিও এখনও রিং আইডি দিয়ে বেশ কিছু মধ্যমে আয় করার পদ্ধতি রয়েছে। এখন রিং আইডি দিন দিন আরও বেশি বেশি জনপ্রিয়তা লাভ পাচ্ছে। যত দিন যাচ্ছে ততই জনপ্রিয় হচ্ছে এই রিং আইডি প্লাটফর্মটি।

রিং আইডি কত দিন থাকবে?

কোনো কোম্পানিই বলে না যে, ওই কোম্পানিটি মার্কেটে কতদিন থাকবে। ঠিক একইভাবে রিং আইডি কত দিন থাকবে সেটাও কেউ বলতে পারবে না। রিং আইডি কত দিন থাকবে, এটা সম্পুর্ণ রিং আইডি কোম্পানির প্লান।

পরিস্থিতির উপর নির্ভর করে কোম্পানি এই মতামত নিবে বলে আমি মনে করি। তবে মনে রাখবেন, একটা কোম্পানি অনেক বড় হয়ে গেলে কোম্পানিটি কখনোই চাইবে না যে, তার কোম্পানিটি বন্ধ করে দিতে।

তো মোট কথাই বলা যায় রিং আইডি কত দিন থাকবে সেটা কোম্পানির উপর নির্ভর করে।

রিং আইডির মালিক কে?

আইরিন ইসলাম নামক এক ব্যক্তি হলো রিং আইডির মালিক। মজার বিষয় হচ্ছে তিনি বাংলাদেশি।

অর্থাৎ রিং আইডি হলো একটি বাংলাদেশি সোস্যাল প্লাটফর্ম। ২০০৫ সালে তিনি এবং তার বন্ধু শরীফ ইসলাম মন্ট্রিয়ল সিটি, কেবেক-এ রিং আইডির কাজ শুরু করেছিল।

সেই বছরেই তারা ringid.com নমক একটি ডোমেইন নেম রেজিস্টার করেন। এরপর ২০১৪ সালের শেষের দিকে প্রথমবারের মতো তাদের প্লাটফর্মটি লঞ্চ করেন।

রিং আইডি অফিস কোথায়?

রিং আইডির অফিস ঢাকা, গুলশান, নিকেতনে অবস্থিত।

রিং আইডি দিয়ে ইনকাম ২০২১

রিং আইডি দিয়ে ইনকাম ২০২১
রিং আইডি দিয়ে ইনকাম ২০২১

বর্তমানে ৩টি মাধ্যমে রিং আইডি দিয়ে ইনকাম করা যাচ্ছে। যেমন:

  1. রেফার করে রিং আইডি দিয়ে ইনকাম।
  2. ইনভেস্টমেন্ট করে রিং আইডি দিয়ে ইনকাম।
  3. এজেন্ট হয়ে রিং আইডি দিয়ে আয়।

রেফার করে রিং আইডি থেকে আয়

রিং আইডি দিয়ে ইনকাম করার সহজ ও ফ্রি মাধ্যমে হচ্ছে এটি। আপনার যদি কোনো বড় একটি ইউটিউব চ্যানেল, ফেসবুক পেজ, ফেসবুক গ্রুপ থাকে তাহলে আপনি খুব সহজেই রেফার করার মাধ্যমে রিং আইডি দিয়ে ইনকাম করতে পারবেন।

এছাড়াও যাদের ফেসবুক পেজ, ইউটিউব চ্যানেল ও অডিয়েন্স নেই। চাইলে তারাও রিং আইডি থেকে অনলাইনে আয় করতে পারবে। এক্ষেত্রে তারা তাদের বন্ধু বান্ধবের ফোনে তাদের রেফার কোড দিয়ে রিং আইডি অ্যাপস ডাউনলোড করে দিতে হবে।

প্রতি রেফারে আপনি পাবেন ৫০ টাকা। সাথে আপনার বন্ধু, অর্থাৎ যাকে রিং আইডি ইনস্টল করে দিয়েছেন। সেও পাবে ৫০ টাকা বোনাস।

ইনভেস্টমেট করে রিং আইডি দিয়ে আয়

রিং আইডি জব কমিনিটি থেকেও আপনি প্রতিদিন অনেক টাকা ইনকাম করতে পারবেন। এক্ষেত্রে বিজ্ঞাপন দেখার মাধ্যমে ইনকাম হয়ে থাকে। আর এর জন্য অবশ্যই আপনাকে ইনভেস্ট করতে হবে।

আর ইনভেস্ট করার জন্য রিং আইডিতে আপাতত ২টি প্লান রয়েছে। যথাঃ
সিলভার মেম্বারশিপ (Silver Membership)
গোল্ড মেম্বারশিপ (Gold Membership)

Silver Membership : সিলভার মেম্বারশিপ এর ক্ষেত্রে আপনাকে ১২ হাজার টাকা ইনভেস্ট করতে হবে। আর আপনি প্রতিদিন ৫০ বিজ্ঞাপন দেখতে পারবেন এই সিলভার মেম্বারশিপ প্লানে।

আর এই ৫০ টি বিজ্ঞাপন দেখার বিনিময়ে আপনি প্রতিদিন সর্বমোট ইনকাম করতে পারবেন : ২৫০ টাকা। প্রতিদিন আপনার ২৫০ টাকা ইনকাম হলে, মাসে আপনার সর্বমোট আয় : ৭,৫০০ টাকা।

Gold Membership : গোল্ড মেম্বারশিপ প্লান এর মুল্য ২২ হাজার টাকা। অর্থাৎ আপনাকে ২২,০০০ টাকা ইনভেস্টমেন্ট করতে হবে।

এই গোল্ড মেম্বারশিপ প্লানে আপনি প্রতিদিন মোট ১০০ টি বিজ্ঞাপন দেখতে পারবেন। আর এই ১০০ টি বিজ্ঞাপন দেখার বিনিময়ে আপনার প্রতিদিন ইনকাম হবে : ৫০০ টাকা। প্রতিদিন আপনার ৫০০ টাকা হলে, মাসে আপনার সর্বমোট ইনকাম হিবে : ১৫ হাজার টাকা।

তো বুঝতেই পারছেন যে, রিং আইডি কমিনিটি জব থেকে কি পরিমান ইনকাম আপনি করতে পারবেন।

এজেন্ট হয়ে রিং আইডি দিয়ে ইনকাম।

যদি আপনার রিং আইডি সম্পর্কে ভালো জ্ঞান থেকে থাকে। তাহলে আপনি চাইলে রিং আইডির কাছে আবেদন করে রিং আইডির এজেন্ট হয়ে আপনি ভালো পরিমান ইনকাম করতে পারবেন।

এজেন্ট এর কাজ হলো রিং আইডির নতুন গ্রহকদের সকল প্রশ্নের উত্তর দেওয়া। আর এই উত্তর দেওয়ার ফলে গ্রহক আপনাকে ভোট দিবে। এবং আপনি রিং আইডির পক্ষ থেকে নির্দিষ্ট পরিমান অর্থ আয় করতে পারবেন।

আমাদের শেষ কথা

রিং আইডি দিয়ে ইনকাম ২০২১ সম্পর্কে এতক্ষণে হয়তো আপনারা সকল রকমের আইডিয়া পেয়ে গেছেন।

আশাকরি পোস্টটি আপনাদের উপকারে এসেছে। সর্বশেষে পোস্টটি শেয়ার করার অনুরোধ রইলো। সবাই ভালো থাকবেন সুস্থ থাকবেন। ধন্যবাদ

MD NOUR

তেমন কিছু না, অলস হলেও লেখালেখিকেই ভালোবাসি😊

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button